ইসলাহী বয়ান

বিধর্মীদের ধর্মীয় উৎসবে গমণ করা মুসলমানদের জন্য সম্পূর্ণরূপে হারাম। হাদীসে এ বিষয়ে কঠোর নিষেধাজ্ঞা এসেছে।
তবে যদি শিরকী কাজকে সঠিক ও যথার্থ মনে না করে এমনিতে সৌজন্যতা রক্ষার্থে গমণ করে থাকে, তাহলে তাকে কাফের বলা যাবে না। যদি তার অন্তর ঈমান ও ইসলামের প্রতি পূর্ণ আনুগত্বশীল থাকে। আব্দুর রহমান বিন যিয়াদ বিন আনউম থেকে থেকে বর্ণিত। আবূ যর গিফারী রাঃ কে একটি ওলীমায় দাওয়াত করা হয়। যখন তিনি সেখানে উপস্থিত হন তখন তিনি (গানবাদ্যের) আওয়াজ শুনতে পান। তখন তিনি সেখান থেকে ফেরত চলে যান। এ বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসা করা হল, আপনি কি প্রবেশ করবেন না? উত্তরে বললেন, আমি এখানে (গানবাদ্যের) আওয়াজ শুনেছি। আর যে ব্যক্তি কোন দলের সংখ্যা বৃদ্ধি করে সে তাদেরই অন্তর্ভুক্ত হয়। আর যে ব্যক্তি কোন কাজের প্রতি সন্তুষ্টি প্রকাশ করে সেও উক্ত কাজে শরীক হয়ে যায়। [আযুহদ ওয়ার রাকায়েক, ইবনে মুবারককৃত-২/১২, নসবূর রায়াহ-৪/৩৪৬-৩৪৭, শরুহুস সুন্নাহ লিলবাগাবী-৯/১৪৯

“من كثر سواد قوم فهو منهم، ومن رضي عمل قوم كان شريكا في عمله”. “الديلمي عن ابن مسعود”

ইবনে মাসঈদ রাঃ থেকে বর্ণিত। যে ব্যক্তি কোন গোষ্ঠির সংখ্যা বৃদ্ধি করে সে তাদেরই অন্তর্ভূক্ত হবে। আর যে ব্যক্তি কোন গোষ্ঠির কর্মকে সমর্থন করে সে তাদের কাজের সাথে শরীক সাব্যস্ত হবে। [কানযুল উম্মাল-৯/২২, বর্ণনা নং-২৪৭৩৫, নসবুর রায়াহ-৪/৩৪৬]

রবিউল আওয়ালের করণীয় বর্জনীয়( পর্ব -2) মুসতাফা আল মাহমুদ আল মাদানী দাঃ বাঃ

রবিউল আওয়ালের করণীয় বর্জনীয়( পর্ব -2) মুসতাফা আল মাহমুদ আল মাদানী দাঃ বাঃ

অহংকার সম্পর্কে মুসতাফা আল মাহমুদ আল মাদানী দাঃ বাঃ 30 11 18

রবিউল আওয়ালের করণীয় বর্জনীয়( পর্ব -2) মুসতাফা আল মাহমুদ আল মাদানী দাঃ বাঃ

রবিউল আওয়ালের করণীয় বর্জনীয়( পর্ব -2) মুসতাফা আল মাহমুদ আল মাদানী দাঃ বাঃ

রবিউল আওয়ালের করণীয় বর্জনীয়( পর্ব -2) মুসতাফা আল মাহমুদ আল মাদানী দাঃ বাঃ

অহংকার সম্পর্কে মুসতাফা আল মাহমুদ আল মাদানী দাঃ বাঃ 30 11 18

রবিউল আওয়ালের করণীয় বর্জনীয়( পর্ব -2) মুসতাফা আল মাহমুদ আল মাদানী দাঃ বাঃ